স্বাগতম!

মোবাইল ফোন প্রযুক্তি পৃথিবীকে একদম বদলে দিচ্ছে। বর্তমানে, প্রায় সকলের কাছেই স্মার্টফোন আছে যেটির মাধ্যমে তারা সারাক্ষণ অন্যদের সাথে যোগাযোগ করছেন এবং বিভিন্ন তথ্য খুঁজছেন। অনেক দেশেই স্মার্টফোনের সংখ্যা কম্পিউটারকে ছাড়িয়ে গেছে। তাই অনলাইন জগতে নিজের উপস্থিতির জন্য মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট থাকা খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

আপনি এখনও আপনার ওয়েবসাইট মোবাইল-ফ্রেন্ডলি করে না থাকলে, আর দেরি করবেন না। অধিকাংশ ব্যবহারকারী সম্ভবত মোবাইল ফোন ব্যবহার করে আপনার সাইট দেখতে আসছেন।

  1. আপনার সাইট মোবাইল-ফ্রেন্ডলি কিনা তা না জানলে, মোবাইল-ফ্রেন্ডলি পরীক্ষা করে দেখুন!
  2. আপনি Wordpress-এর মতো কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সফ্টওয়্যার ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকলে, আপনার ওয়েবসাইট সফ্টওয়্যার কাস্টমাইজ করা প্রসঙ্গে আমাদের নির্দেশিকা পড়ুন।
  3. এই ধরনের কোনও সফ্টওয়্যার ব্যবহার না করলে, কোনও ওয়েব ডেভেলপারকে নিয়োগ করার কথা ভেবে দেখতে পারেন। এই বিষয়ে আমাদের একটি চেকলিস্ট আছে।
  4. আপনি প্রযুক্তিগত বিষয়ে দক্ষ হলে আমাদের মোবাইল SEO সংক্রান্ত নির্দেশিকা পড়ুন।

মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট কেন তৈরি করা প্রয়োজন সেটি সম্পর্কে আরও জানতে চাইলে নিচে দেখুন!

মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট তৈরি করা কেন প্রয়োজন?

সাইটের ডেস্কটপ ভার্সনটি মোবাইল ডিভাইসে দেখা ও ব্যবহার করার সময় অসুবিধা হতে পারে। ওয়েবসাইট মোবাইল-ফ্রেন্ডলি না হলে ব্যবহারকারীকে কন্টেন্ট পিঞ্চ বা জুম করে পড়তে হয়। ব্যবহারকারীর কাছে এই অভিজ্ঞতা বিরক্তিকর হতে পারে এবং তিনি সাইট ছেড়ে চলে যেতে পারেন। অন্য দিকে, মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ভার্সন সহজে পড়া ও ব্যবহার করা যায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, ৯৪% স্মার্টফোন ব্যবহারকারী তাদের ফোনে স্থানীয় তথ্য সার্চ করেন। আরেকটি উল্লেখযোগ্য তথ্য হল যে ৭৭% মোবাইল সার্চ বাড়িতে অথবা অফিসে হয়ে থাকে, সেখানে কম্পিউটার থাকার সম্ভাবনা বেশি।

আপনার প্রিয় খেলার টিম সম্পর্কে ব্লগ পোস্ট লেখা, কমিউনিটি থিয়েটারের জন্য ওয়েবসাইট তৈরি করা বা সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে আপনার প্রোডাক্ট পৌঁছে দেওয়া ইত্যাদি যেকোনও কাজের ক্ষেত্রেই মোবাইল আপনার ব্যবসার জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং ভবিষ্যতেও তাই থাকবে। মোবাইল ব্যবহার করে আপনার সাইট দেখতে আসলে ব্যবহারকারীর যেন ভাল অভিজ্ঞতা হয় সেই বিষয়ে লক্ষ্য রাখুন!

আমি কীভাবে শুরু করব?

মোবাইল-ফ্রেন্ডলি সাইট তৈরি করার কাজটি আপনার ডেভেলপারের রিসোর্স, ব্যবসার মডেল ও দক্ষতার উপর নির্ভর করে। একটি ডেস্কটপ সাইট আবার ডিজাইন করে কীভাবে মোবাইলে কাজ করার উপযোগী করে তোলা যায় তা জানতে নিচের ছবিটি দেখুন:

প্রয়োগের খুব প্রাথমিক অবস্থায় আগে থেকেই আছে এমন ডেস্কটপ সাইটের কন্টেন্টের বিভাগগুলি মোবাইল-ফ্রেন্ডলি ডিজাইন প্যাটার্নে সাজানোর মাধ্যমে ডেস্কটপ সাইটকে মোবাইলের জন্য উপযোগী করে তোলা হয়েছে।

আপনি নিজে করুন বা কোনও ডেভেলপারের সাহায্যে সাইট তৈরি করান, উভয় ক্ষেত্রেই মোবাইল সাইটের প্রযুক্তিগত প্রয়োগের জন্য মোবাইল SEO সম্পর্কে আমাদের ডকুমেন্টেশন দেখুন।

মোবাইল ডিভাইসের জন্য একটি সাইট তৈরি করতে কত খরচ হয়?

এটি বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্ভর করে! এখানে কিছু সম্ভাবনার কথা বলা হল:

  • আপনার মোবাইল ওয়েবসাইটের জন্য একটি প্রতিক্রিয়াশীল টেমপ্লেট বা থিম বেছে নিলে সেটি বিনামূল্যে হতে পারে। ব্যবহারকারী ডেস্কটপ, ট্যাবলেট বা মোবাইল ফোন যাই ব্যবহার করুন না কেন প্রতিক্রিয়াশীল টেমপ্লেট/থিম সেই অনুযায়ী নিজের ডিসপ্লে পরিবর্তন করে নেয়।
  • মোবাইল সাইট নিজেই তৈরি করে নেওয়ার মতো প্রযুক্তিগত দক্ষতা আপনার থাকলে সেটি বিনামূল্যে হতে পারে। ওয়েবের মূল নীতি দেখে নিতে ভুলবেন না!
  • ডেভেলপার নিয়োগ করে মোবাইলের জন্য উপযুক্ত সাইট তৈরি করতে চাইলে সেটি খরচ ও সময়সাপেক্ষ হতে পারে। এছাড়াও, আপনার ওয়েবসাইট খুব পুরনো হলে ডেভেলপার আপনাকে একেবারে নতুন করে সাইট তৈরি করার কথা বলতে পারেন (অর্থাৎ, আপনাকে একেবারে প্রথম থেকে তৈরি করার জন্য খরচ করতে হবে)। কারণ, নতুন ওয়েব ডেভেলপমেন্টের পদ্ধতি ও থিম (বা পৃষ্ঠার টেমপ্লেট) ব্যবহার করে আপনার সাইট নতুন করে তৈরি করা পরিবর্তন করার থেকে সহজ হতে পারে। নিম্নলিখিত সাইটগুলির ক্ষেত্রে এটি বিশেষভাবে প্রযোজ্য:
    • ফ্ল্যাশ দিয়ে তৈরি
    • পুরনো ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে তৈরি

একটি সুবিধার বিষয় হল যে আপনি একেবারে নতুন করে তৈরি করলে ডেভেলপার আগে থেকেই আছে এমন কোনও টেমপ্লেট/থিম ব্যবহার করতে পারেন। আপনি আপনার পুরনো কন্টেন্ট আবার ব্যবহার করে সময় ও খরচ বাঁচাতে পারেন।

এরপরে আর কী কী করতে হবে?

আপনার পরবর্তী ধাপ যাই হোক না কেন, মোবাইলের জন্য আপনার ওয়েবসাইটকে উপযুক্ত করে তুলতে ভুলবেন না!

Send feedback about...

সার্চ
সার্চ